পুলিশ অভদ্রতা করেনি: সালমান মুক্তাদির

মঙ্গলবার দুপুরের পর ঢাকার মিন্টো রোডে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাউন্টার টেররিজম, ট্রান্সন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিটে দেড় ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় এই যুবককে।

বিতর্কিত ভিডিও ছড়ানোয় অভিনেত্রী সানাই মাহবুবকে ডেকে নিয়ে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের পর সালমান মুক্তাদিরকে নিয়েও একই পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি করছিলেন কেউ কেউ।

এর মধ্যেই তথ্য প্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার সোমবার ফেইসবুকে লেখেন, “কেউ কি সালমান মুক্তাদিরের আজকের অবস্থা জানাতে পারবেন?”

তার এক দিনের মধ্যে ডিবি কার্যালয় ঘুরে আসতে হয় সালমানকে।
তাকে ডেকে আনা হয়েছিল বলে কাউন্টার টেররিজম, ট্রান্সন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিটে কর্মরত অতিরিক্ত উপ কমিশনার আ স ম আল কিবরিয়া জানালেও সালমান তা অস্বীকার করেছেন।

কিবরিয়া বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সালমান মুক্তাদিরকে আজ দুপুরের দিকে ডেকে আনা হয়েছিল। দেড় ঘণ্টার মতো জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।”

পরে সালমানকে ছেড়ে দেওয়া হলেও কী নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল, সে বিষয়ে কিছু বলেননি এই পুলিশ কর্মকর্তা।

সালমান অনলাইনে বেশ জনপ্রিয়; ইউটিউবে তার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার প্রায় ১১ লাখ, ফেইসবুকে তার ফলোয়ার ১৬ লাখের মতো। নিজেকে বাংলাদেশি প্রথম সফল ইউটিউবার হিসেবে দাবি করেন এই যুবক।

সম্প্রতি তিনি ‘অভদ্র প্রেম’ নামে একটি মিউজিক ভিডিও তোলেন ইউটিউবে তার চ্যানেলে, যা ‘অশালীন’ বলে অনেকে সমালোচনা করছিলেন।

সালমানকে ডেকে নেওয়ার পর তাকে আটক করার গুঞ্জন ছড়িয়েছিল; তখন তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া গেলেও রাত ৮টার দিকে নিজের ফেইসবুকে তিনি লেখেন, তিনি গ্রেপ্তার হননি।

ঘণ্টা খানেক পর ওই পোস্টটি সরিয়ে নেন তিনি। পরে তাকে মোবাইল ফোনে পায় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

তখন সালমান বলেন, তিনি নিজ উদ্যোগেই পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন।

“সম্প্রতি আমাকে নিয়ে বিভিন্ন কথাবার্তা শুনে আমি নিজ উদ্যোগেই উনাদের ফোন করে গিয়ে দেখা করেছি। বাংলাদেশে ইউটিউব কনটেন্ট নিয়ে বিশেষ কোনো রেগুলেশন আমার জানা নেই। তাই উনাদের কাছ থেকে নির্দেশনা পাই কি না, সেটাই ছিল আমার জানার ইচ্ছা।”

কী বিষয়ে কথা হয়েছে- জানতে চাইলে সালমান বলেন, “আমি একটি মিউজিক ভিডিও বানিয়েছিলাম, যার নাম অভদ্র প্রেম। মূলত ইন্ডিয়ান দর্শকদের কথা মাথায় রেখেই ভিডিওটি বানাই। সেটা নিয়ে কিছু কথা হয়।

ওটা আপাতত বাংলাদেশে প্রদর্শন বন্ধ রেখেছি।”

জিজ্ঞাসাবাদের সময় পুলিশ কর্মকর্তাদের আচরণের বিষয়ে তিনি বলেন, “আমার সাথে কোনো খারাপ ব্যবহার করে নাই।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *