বার্সেলোনাকে ভয় পায় না লিওঁ

অপেক্ষাটা লিওঁর অনেক দিনের। সাত বছর পর চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোতে ফিরেছে লিওঁ। প্রত্যাবর্তনেই সম্ভাব্য সবচেয়ে কঠিন প্রতিপক্ষই পেয়েছে তারা। ফ্রেঞ্চ ক্লাবের আজকের প্রতিপক্ষ পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা।

দল হিসেবেও যদি কাতালান ক্লাবকে সমীহ করতে ইচ্ছা না হয়, লিওনেল মেসিকে তো হিসেবে রাখতেই হবে লিওঁকে। এ মৌসুমে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। ঘরের মাঠে ম্যাচ বলেই হয়তো মেসির বার্সেলোনাকে শ্রদ্ধা করলেও ভয় পাচ্ছে না লিওঁ।

ফ্রেঞ্চ লিগে আপাতত তিনে আছে লিওঁ। চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোতে উঠলেও পথটা সহজ ছিল না। টানা পাঁচ ড্র মিলিয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে গ্রুপ পর্ব পার হয়েছে তারা।

কিন্তু মিডফিল্ডার হোসেম অরেরের আত্মবিশ্বাসে এসব কিছুই চিড় ধরাতে পারছে না, ‘এ ম্যাচের জন্য আমরা ভালো প্রস্তুতি নিয়েছি এবং আমাদের পুরো মনোযোগ এ ম্যাচ নিয়ে। আমরা ভালোভাবেই জানি কী চ্যালেঞ্জ আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে কিন্তু আমরা মাঠে সব নিংড়ে দেব।’

লিওঁ কোচ ব্রুনো জেনেসিও নিজেই বলেছেন বার্সেলোনাকে আটকাতে হলে সামর্থ্যের এক শ ভাগেরও বেশি দিতে হবে। কিন্তু ফ্রেঞ্চ ক্লাবের দুর্ভাগ্য দলের সেরা সৃষ্টিশীল খেলোয়াড়কেই পাচ্ছে না তাঁরা। নাবিল ফেকির যে চোটের কাছে হার মেনে খেলছেন না আজ।

অরেরও স্বীকার করে নিয়েছেন ফেকিরকে ছাড়া জয় পাওয়া কঠিন হবে, ‘মাঠের সব খানেই দুর্দান্ত খেলোয়াড় আছে ওদের(বার্সেলোনার)। শুধু একজন বা দুজনকে সামলালেই চলবে না তাহলে অন্যরা আপনাকে ভোগানোর ক্ষমতা রাখে। ফেকিরকে ছাড়া আমরা সাধারণত হারি। এটা জানি তবু ওর বদলে খেলার মতো অনেকেই আছে দলে।’

কোচ জেনেসিও মানছেন কঠিন পরীক্ষা অপেক্ষা করছে তাদের জন্য, ‘আমরা জানি আমরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারব, কিন্তু আমরা ফেবারিট নই। ছেলেদের অনেক বড় পরিশ্রম করতে হবে। নিজেদের ওপর বিশ্বাস রাখতে হবে।’ তবে বার্সেলোনা বলেই কিছুটা আত্মবিশ্বাস পাচ্ছেন কোচ। কারণ এবার চ্যাম্পিয়নস লিগের শুরুটা যে তাদের হয়েছে ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে।

সিটির মাঠে ২-১ ব্যবধানে জিতে এসেছে লিওঁ। দুই দলের খেলার ধাঁচ একই বলেই সাহস পাচ্ছেন জেনেসিও, ‘ম্যানচেস্টার সিটি ও বার্সেলোনা দারুণ আক্রমণাত্মক দুটি দল এবং তাদের অনেক ফুটবল দর্শনই কাছাকাছি, যার একটি হলো পজেশন ফুটবল। আমার মনে হয় সিটির সঙ্গে খেলার অভিজ্ঞতা ভালো কাজে দেব।’

তবে সিটির চেয়েও বার্সেলোনাকে এগিয়ে রাখছেন লিওঁ কোচ। কারণ, ‘বার্সেলোনা একটু ভিন্ন কারণ ওদের লিওনেল মেসি আছে। আমাদের ওকে সামলাতে হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *